কলেজের সুযোগ সুবিধা সমূহ

আর্থিক সুবিধা:

বোর্ড পরীক্ষায় গোল্ডেন এচঅ-৫ প্রাপ্ত সকল বিভাগের শিক্ষার্থীদের মাসিক ৫০০/- টাকা মেধা বৃত্তি প্রদান করা হবে।

 

চিকিৎসা ব্যবস্থা :

কলেজের উবয় শাখায় সার্বক্ষণিক একজন করে ডাক্তার আছেন। শিক্ষার্থীদের আকস্মিক অসুস্থতায় তিনি প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের চবৎংড়হধষ ঐুমরহব সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রয়োজনীয় উপদেশ দেন। কলেজে একটি প্রাথমিক চিকিৎসালয় এবং পরিচর্যা কেন্দ্রও আছে।

কম্পিউটার ল্যাব :

অত্র প্রতিষ্ঠানে আধুনিক কম্পিউটার সমৃদ্ধ সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব রয়েছে। বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখার প্রত্যেকটি শিক্ষার্থী এতে উপকৃত হচ্ছে। এখানে  ওভার হেড প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে ডিজিটাল ক্লাসও গ্রহণ করা হয়।

 

ক্যান্টিন :

প্রতিষ্ঠানে রুচিসম্মত ক্যান্টিন রয়েছে। এ ক্যান্টিন শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের চাহিদা পূরণ করে। এখানে ¯œ্যাকস, কোল্ড ড্রিংকসহ উন্নত মানের খাবার পাওয়া যায়। খাবারের মানের উপর কর্তৃপক্ষ সবসময় দৃষ্টি রাখেন।

 

কমনরুম :

খেলাধুলা, ম্যাগাজিন ও আধুনিক সুযোগ সুবিধাসহ একটি মনোরম কমনরুমে শিক্ষার্থীরা তাদের অবসর সময় কটাতে পারে।

গবেষণাগার :

কলেজে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান এবং আইসিটির অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরি আছে। ল্যাবরেটরিতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক উন্নতমানের যন্ত্রপাতি ও উপকরণ রয়েছে ব্যবহারিক ক্লাস সুষ্ঠুভাবে করার জন্য ছাত্রদের ছোট ছোট গ্রুপে বিভক্ত করে ক্লাস নেওয়া হয়।

জিমনেসিয়াম :

শিক্ষার্থীদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশের জন্য একটি আধুনিক জিমনেসিয়াম আছে। এটি রানিং মেশিন, ওয়েট লিফটার, এবকিং, সাইকেলিং, স্কিপিং এবং আরো আধুনিক যন্ত্রে সজ্জিত। এখানে ছাত্ররা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য শরীরচর্চা করতে পারে।

অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা মূল্যায়ন পদ্ধতি:

শিক্ষার্থীদের মেধার বিকাশ ও অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের লক্ষ্যে নিয়মিত অর্থ-বার্ষিক ও বার্ষিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। প্রত্যেক পরীক্ষার পূর্বে কমপক্ষে তিনটি করে শ্রেণি পরীক্ষা নেয়া হয় এবং শ্রেণি  পরীক্ষার নম্বর অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার সাথে যোগ করে ফলাফল তৈরি করা হয়। প্রাক-নির্বাচনি ও নির্বাচনি পরীক্ষার পর দুটি মডেল টেস্ট নেয়া হয়ে থাকে।

 

সুস্থ দেহ সুস্থ মন:

শিক্ষার্থীদের সুস্বাস্থ্যের দিকে দৃষ্টি রেখে আন্তঃখেলাধুলা, হ্যান্ডবল, ভলিবল, ক্রিকেট, ফুটবল, ক্যারাম, টেবিল টেনিস ও শরীরচর্চা শেখানো হয়। জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্য। এছাড়া আন্তঃকলেজ প্রতিযোগিতায় এখানকার শিক্ষার্থীরা নিয়মিত অংশগ্রহণ করে থাকে।

 

জেনারেটর লিফট:

নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য সর্বক্ষণিক জেনারেটরের ব্যবস্থা আছে। শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের ওঠা-নামার জন্য উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন লিফট আছে।